ছেলেদের গোপনাঙ্গের পাশে চুলকানি দূর করার ওষুধের নাম

প্রিয় পাঠক আজকের আর্টিকেলে আমরা আলোচনা করব ছেলেদের গোপনাঙ্গের পাশে চুলকানি দূর করার ওষুধের নাম নিয়ে। আমরা ছেলেরা অনেক সময় এই সমস্যায় পড়ে থাকি। বিভিন্ন ভাইরাস এবং সংক্রমণের কারণে গোপনাঙ্গের আশেপাশে চুলকানি হয় ।
চলুন তাহলে আজকের দেরি না করে জেনে নেয়া যাক ছেলেদের গোপনাঙ্গের পাশে চুলকানি দূর করার ওষুধের নাম এবং কিভাবে দ্রুত ভালো করা যায় সেই বিষয়ে। আপনারা যারা সেই সকল সমস্যায় পড়েছেন এবং সে সকল সমস্যা থেকে দূরে থাকতে চাচ্ছেন আজকের পোস্টটি তাদের জন্য।

পুরুষাঙ্গের চুলকানি দূর করার ক্রিম

পুরুষাঙ্গের চুলকানি দূর করার উপায় বলতে হলে আমাদের প্রথমেই বলতে হয় ক্রিম ও ওষুধের কথা। ত্বকে যেকোনো সমস্যার ক্ষেত্রে ক্রিম হলো উত্তম প্রতিষেধক। আর্টিকেল এই অংশে তাই পুরুষাঙ্গের চুলকানি দূর করার ওষুধ নিয়ে আলোচনা করব।

Lamisil Cream:এই ক্রিমটি জক ইচ বা পুরুষাঙ্গের চুলকানি নিরাময়ে ব্যবহৃত হয়। ফাংগাল ইনফেকশনের কারণে ত্বকে হওয়া প্রদাহেও এটি ব্যবহার করা হয়।এটি ব্যবহারের পূর্বে আক্রান্ত জায়গা ভালোভাবে পরিষ্কার করে শুকিয়ে নিতে হবে।তারপর পরিষ্কার হাতে পরিমান মত নিয়ে আক্রান্ত স্থানের উপর একটি পাতলা আবরনের মত প্রলেপ দিয়ে লাগাতে হবে।দিনে একবার বা দুইবার ব্যবহার করতে হবে। এই ঔষধ শুধুমাত্র ত্বকে ব্যবহারের জন্য। চোখ,মুখে এটি ব্যবহার করা যাবে না। মেয়েদের যোনিতে চুলকানি হলে এই ওষুধ ব্যবহার করা যাবে না। এর বাজারদর ৭৫ টাকা। বাজারে এটি Terbifin নামেওপাওয়া যায়। 

Lotrimin Cream : এই ক্রিমটিও ত্বকের ইনফেকশন এবং পুরুষাঙ্গে চুলকানি বা জক ইচ রোগে ব্যবহৃত হয়।এটি একটি এন্টি ফাংগাল ক্রিম যা ত্বকের সংক্রমণ দূর করে এবং ইনফেকশনের কারনে হওয়া কালো দাগ মুছে ফেলতেও সাহায্য করে। আক্রান্ত জায়গা ভালোভাবে পরিষ্কার করে শুকিয়ে নিয়ে তারপর এই ক্রিমটি ব্যবহার করতে হবে। এটি পুরুষাঙ্গে চুলকানি দূর করতে ব্যবহৃত হয়, মহিলাদের যোনিতে চুলকানি হলে এটি ব্যবহার করা যাবে না। এই ক্রিম দিনে দুইবার এবং প্রতিদিন একই সময়ে ব্যবহার করার চেষ্টা করতে হবে।ইনফেকশনের ধরণের উপর নির্ভর করে এর ডোজ নির্ধারণ করা হয়ে থাকে, তাই ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে এটি ব্যবহার করাই উত্তম। এই ক্রিমের দাম ৩৫ টাকা।

Micatin Cream : এটি একটি এন্টিফাংগাল ক্রিম যা ত্বকের ইনফেকশন,গোলকৃমির সংকৃমির সংক্রমণে সৃষ্ট ত্বকের ক্ষত এবং পুরুষাঙ্গে চুলকানি বা জক ইচ রোগে ব্যবহৃত হয়। ইনফেকশনের কারনে হওয়া কালো দাগ প্রতিরোধে সাহায্য করে। আক্রান্ত জায়গা ভালোভাবে পরিষ্কার করে শুকিয়ে নিয়ে তারপর এই ক্রিমটি ব্যবহার করতে হবে। এটি পুরুষাঙ্গে চুলকানি দূর করতে ব্যবহৃত হয়, মহিলাদের যোনিতে চুলকানি হলে এটি ব্যবহার করা যাবে না। এই ক্রিম দিনে দুইবার এবং প্রতিদিন একই সময়ে ব্যবহার করার চেষ্টা করতে হবে। বাজারে এই ক্রিমের দাম ৬০ টাকা। এই ক্রিমের স্প্রে ফর্ম ও পাওয়া যায়। স্প্রে  ব্যবহার করলে ব্যবহারের পূর্বে অবশ্যই বোতল ঝাকিয়ে নিতে হবে। 

Cortisone Cream : এটি ত্বকে এলার্জি জনিত কারণে হওয়া চুলকানি দূর করতে ব্যবহৃত হয়। নাভির নিচে চুল কাটার পরও অনেক সময় পুরুষাঙ্গে চুলকানি হতে পারে। এসব এলার্জিজনিত চুলকানি নিরাময়ে এই ক্রিম ব্যবহার করা হয়। দিনে ৩/৪ বার করে ৭ দিন এই ক্রিম ব্যবহার করলেই পুরুষাঙ্গের চুলকানি দূর হয়ে যাবে। সাধারণত চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়াও এই ক্রিম ব্যবহার করা যায় কেননা এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই। এই ক্রিমের দাম ৬৫ টাকা। বাংলাদেশে এই ক্রিমটি বহুল ব্যবহৃত হয়। 

Fungiderm cream : পুরুষাঙ্গে ছত্রাক ও ব্যাকটেরিয়া আক্রমণের ফলে যে সংক্রমণের সৃষ্টি হয় তা থেকে নিরাময় পেতে এই ফাঙ্গিডার্ম ক্রিমটি চিকিৎসকেরা পরামর্শ দেন। এটি ছত্রাক সংক্রমণকে বাঁধা দিয়ে আক্রান্ত স্থান শুকিয়ে ফেলে। সাধারণত ফাঙ্গাস আক্রমণের শিকার হয়ে যখন উরুর ভাঁজে, নিতম্বে, দুই পায়ের কুচকিতে এবং গোপনাঙ্গে প্রচন্ড চুলকানির হয় তখনই এই ক্রিম ব্যবহার করা হয়। এধরনের সংক্রমণের জন্য এই ক্রিম অত্যন্ত কার্যকর। দিনে ২/৩ বার আক্রান্ত স্থান পরিষ্কার করে এই ক্রিম ব্যবহার করতে হয়। এটি ব্যবহারে ত্বকে সামান্য লাল লাল ভাব ও জ্বালা অনুভব হতে পারে সামান্য সময়ের জন্য তবে এটি কোনো সমস্যা নয়। এই ক্রিমের দাম ৫০ টাকা। 

Clotrimazole cream:  এই ক্রিমটি ক্যানডিডা নামক ছত্রাকের আক্রমনে হওয়া পুরুষাঙ্গের চুলকানি দূর করার জন্য ব্যবহার করা হয়। এটির স্প্রে ফর্মও পাওয়া যায়। তবে এটি ১২ বছরের নীচের কোনো শিশুর জন্য ব্যবহার করা যাবে না। মহিলাদের যোনিতে চুলকানি হলেও এটি ব্যবহার করা যাবে।

ketoconazole : এটি একটি ফাঙ্গাল ওষুধ। ঈষ্ট নামক ছত্রাকের আক্রমন দ্বারা সৃষ্ট ত্বকের পুরুষাঙ্গের চুলকানি দূর করার জন্য এই ক্রিমটি ব্যবহৃত হয়। এটি শুধু চুলকানি দূর করাই নয় বরং পুনরায় চুলকানি সৃষ্টিকারী ঈষ্ট নামক ছত্রাকের ফিরে আসা রোধ করতে পারে। ১২ বছরের নীচে কোনো শিশুর ক্ষেত্রে এই ক্রিম ব্যবহার করা যাবে না। এই ক্রিমটি আক্রান্ত স্থানে দিনে ২ থেকে ৩ বার করে ২ সপ্তাহ ব্যবহার করতে হবে। কোনো কোনো ক্ষেত্রে সংক্রমণ জটিল হলে ৩ থেকে ৬ সপ্তাহ ব্যবহার করতে হতে পারে। এটি ব্যবহারে ত্বকে কিছুটা জ্বালাপোড়া ও লাল হতে পারে।

উপরোক্ত ক্রিমগুলোর বিবরণ লক্ষ্য করলে দেখা যায় যে পুরুষাঙ্গে হওয়া চুলকানির কারনের উপর নির্ভর করে এগুলো ব্যবহার করতে হয়। তাই ক্রিম ব্যবহারের পূর্বে অবশ্যই নিশ্চিত হতে হবে যে কি কারণে চুলকানি হচ্ছে। সাধারণ মানুষের ক্ষেত্রে এই কারণ নির্ধারন করা সম্ভব নয়। কেননা ব্যবটেরিয়া, ফাঙ্গাস খালি চোখে দেখা যায় না। তাই পুরুষাঙ্গে চুলকানি হলে আক্রান্ত ব্যক্তিকে অবশ্যই ডাক্তারের কাছে যেতে হবে। ডাক্তার সংক্রমণের ধরন দেখে যে ক্রিমটি ব্যবহার করতে বলবেন সেটিই ব্যবহার করা উচিৎ। অন্যথায় অনেক রকম সমস্যা হতে পারে।

Afun- এফান ১% ক্রিম ব্যবহারের নিয়ম:আক্রান্ত স্থান ভালোভাবে গরম পানি দিয়ে পরিষ্কার করতে হবে। প্রতিদিন এই ক্রিম ২ থেকে ৩ বার ব্যবহার করতে হবে। আক্রান্ত স্থান যদি ভালো হয়ে যায় তারপরও একমাস ব্যবহার করতে পারবেন। প্রতিদিন তিনবার ব্যবহার করবেন। মহিলাদের জন্য এই ক্রিমটি সবচেয়ে বেশি কার্যকরী। এটার তেমন কোনো পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া নেই তবে কারো কারো হালকা জ্বালাপোড়া করতে পারে।দাম এই ক্রিমের দাম মাত্র ৩৫ টাকা। এটি স্কয়ার ফার্মাসিটিক্যালস লিমিটেড কোম্পানির একটি ক্রিম।

ফানজিডাল এইচ সি ক্রিম ব্যবহারের নিয়ম: এই ক্রিমটি পুরুষদের জন্য সবচেয়ে ভালো কাজ করে। যাদের বিশেষ জায়গায় চুলকানি হয়েছে তারা এটি ব্যবহার করে দেখতে পারেন। মেয়েরাও চাইলে ব্যবহার করতে পারবেন। এই ক্রিম দিনে দুই থেকে তিনবার ব্যবহার করতে হয়। ‌ ব্যবহার করার পূর্বে আক্রান্ত জায়গাটি ভালোভাবে গরম পানিতে পরিষ্কার করে নেয়া উচিত। এটি ১০ থেকে ১৪ দিন ব্যবহার করলে সমস্যা থেকে মুক্তি পেয়ে যাবেন। এটা শরীরের যে কোন অংশে ব্যবহার করা যাবে। তবে একজন চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে ব্যবহার করবেন।দাম ফানজিডাল এইচ সি ক্রিমের দাম ৫৫ টাকা মাত্র। এটিও স্কয়ার ফার্মাসিটিক্যালস লিমিটেড কোম্পানির একটি ঔষধ। 

ফ্লুগাল ৫০ ক্যাপসুল খাওয়ার নিয়ম:এটি যেকোনো চর্ম রোগের কার্যকরী ওষুধ। বিশেষ করে যাদের দাউদ ও চুলকানি। এছাড়া এটি যে কোন ফাঙ্গাল ইনফেকশন হলে খেতে পারেন। প্রতিদিন একটি করে ক্যাপসুল সেবন করতে হবে। খাওয়ার পর ভরা পেটে সেবন করতে হবে। একজন রেজিস্টার্ড চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে খেলে ভালো হবে। এটি শুধুমাত্র প্রাপ্তবয়স্ক ব্যক্তিদের জন্য নির্দেশিত। এই ক্যাপসুল খাওয়ার পাশাপাশি যে কোন একটি ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন। দাম প্রতিটি ফ্লুগাল ৫০ ক্যাপসুল এর দাম ৮.০৭ টাকা মাত্র। প্রতি পাতার মূল্য ৮০.৭০ টাকা।

বিশেষ সতর্কীকরণ: বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ ব্যতীত ঔষধ সেবন করা উচিত নয়। চিকিৎসকের পরামর্শ ব্যতীত উক্ত ঔষধ সেবন করে কোন ধরনের ক্ষতির সম্মুখীন হলে আমরা দায়ী থাকবো না।

গোপনাঙ্গে চুলকানি হলে করণীয়

  • গোপনাঙ্গ ও গোপনাঙ্গের আশেপাশে সব সময় পরিষ্কার রাখার চেষ্টা করতে হবে।
  • নিয়মিত গোসল করতে হবে।
  • গোসল করার পর ভেজা কাপড়ে বেশিক্ষণ না থাকাই ভালো। বেশিক্ষণ থাকলে ছত্রাক হওয়ার সম্ভাবনা থেকে যায়।
  • যৌন মিলনের পর প্রসাব করুন এবং যৌনাঙ্গ ভালোভাবে পরিষ্কার করে নিন।
  • ডায়াবেটিস থাকলে ভালো চিকিৎসা নিন।
  • স্বপ্নদোষ বা অনাকাঙ্ক্ষিত হস্তমৈথুন হলে গোপনাঙ্গটি ভালোভাবে পরিষ্কার করে নিন।
  • সব সময় সুতি কাপড়ের তৈরি আন্ডার ওয়্যার পরিধান করার চেষ্টা করবেন।

পুরুষাঙ্গে চুলকানি দূর করার ঔষধ 

পুরুষদের পুরুষাঙ্গের চুলকানি দূর করার ক্রিম ও চিকিৎসার উপায় নিয়ে আর্টিকেলের শুরুতেই আমরা আলোচনা করেছি এখন আমরা পুরুষাঙ্গের চুলকানি দূর করার ট্যাবলেটের নাম ব্যবহারের নিয়ম ও দাম সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব। 

পুরুষাঙ্গের চুলকানি দূর করার ট্যাবলেট :  ছত্রাকের সংক্রমণ হলে এন্টিফাংগাল ঔষধ যেমন 

  • Nizoral : এই ট্যাবলেটটি ঈষ্ট নামক ছত্রাকের আক্রমনে হওয়া পুরুষাঙ্গের চুলকানি দূর করার জন্য ব্যবহার করা হয়। ডাক্তারের নির্দেশ অনুসারে এই ওষুধটি সাধারণত দিনে একবার খেতে হয়। ওষুধটি খাবারের সাথে বা খাবার ছাড়াই খাওয়া যেতে পারে, কিন্তু খাবারের সাথে এটি গ্রহণ করলে পেট খারাপ হওয়ার সম্ভাবনা থাকে না। ডাক্তার যদি ঔষধটির সাথে অ্যান্টাসিড গ্রহণ করার পরামর্শ দিয়ে থাকে তবে অ্যান্টাসিড নেওয়ার কমপক্ষে ২ ঘন্টা আগে বা ১ ঘন্টা পরে nizoral  ট্যাবলেটটি খেতে হবে।  চিকিৎসা সম্পূর্ণ হতে কয়েক দিন থেকে কয়েক মাস সময় লাগতে পারে।
  • Tioconazole: বিভিন্ন ফাঙ্গাস দ্বারা সংক্রমণের চিকিৎসায় এই ট্যাবলেটটি ব্যবহার করা হয়। পুরুষাঙ্গের চুলকানি দূর করার জন্য এটি উপকারী। তবে মেয়েদের জন্যও এই ট্যাবলেট ব্যবহার করা হয়। দিনে দুইবেলা করে চুলকানি দূর না হওয়া পর্যন্ত এই ট্যাবলেট খেতে হয়।
  • Fluconazole : এই ঔষধটি গোপনাঙ্গের চুলকানি দূর করতে অনেক কার্যকরী। ট্যাবলেটটি প্রতিদিন রাতে ১ করে  ৩ থেকে ৫ দিন খেতে হয়। তবে ব্যবহারের আগে ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়া জরুরি। 
  • fexofenadine:এই ঔষধটি গোপনাঙ্গের চুলকানি দূর করতে অনেক কার্যকরী। ট্যাবলেটটি প্রতিদিন রাতে ১ করে  ৩ থেকে ৫ দিন খেতে হয়। তবে ব্যবহারের আগে ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়া জরুরি। 
  • loratadine ট্যাবলেট সেবন করলেও পুরুষাঙ্গের চুলকানি দূর হয়

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url