ডেওয়া ফল খাওয়ার উপকারিতা

প্রিয় পাঠক ডেওয়া নামটা শুনতে অদ্ভুত মনে হলেও এইটা দেখতে কিছুটা ছোটখাটো কাঁঠালের মত। আজকে আমরা আপনাদের জানানোর চেষ্টা করব ডেওয়া ফল খাওয়ার উপকারিতা সম্পর্কে। ডেওয়া ফল আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য অনেক উপকারী। আপনারা যারা ডেওয়া ফল খাওয়ার উপকারিতা সম্পর্কে জানতে চাচ্ছেন আজকের আর্টিকেলটি তাদের জন্য।

আজকের আর্টিকেলটি পড়লে আপনারা জানতে পারবেন,ডেওয়া ফল খাওয়ার উপকারিতা সম্পর্কে।ডেওয়া ফল দেখতে কাঁঠালের মত হলেও এর স্বাদ কিন্তু ভিন্নরকম। টক মিষ্টি স্বাদের এই ফলটি পাওয়া যায় বর্ষাকালে। তাহলে চলুন জেনে নেয়া যাক বর্ষাকালের সেই ডেওয়া ফল খাওয়ার উপকারিতা সম্পর্কে।

ডেওয়া ফলের পরিচিতি

ডেওয়া ফলের নাম শুনতে আমাদের কাছে অদ্ভুত মনে হলেও মনে হলেও এটা দেখতে ছোট ছোট কাঁঠালের মত। তবে এর স্বাদ কাঠালের থেকে আলাদা টক মিষ্টি স্বাদের এই ফলটি সাধারণত বর্ষাকালে পাওয়া যায়। ডেওয়া দেশীয় ফল হওয়ায় দামেও বেশ সস্তা। এই ফলটি কাঁচা অবস্থায় দেখতে সবুজ হলেও পেকে গেলে এর রং হলুদ হয়ে যায়। এই ফলে রয়েছে বিভিন্ন রকমের স্ত্রী উপাদান যা খেলে আমাদের পেটের বিভিন্ন ধরনের রোগ থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব। আমাদের শরীরের শক্তি যোগাতে ও সাহায্য করে।

গ্রামাঞ্চলে সাধারণ মানুষের কাছে এই ফলটি পরিচিত হলেও শহরের মানুষের কাছে এটি অপরিচিত। ডেওয়া ফলের চাহিদা দিন দিন বেড়েই চলেছে। বিদেশেও রয়েছে ডেওয়া ফলের পর্যাপ্ত চাহিদা সেজন্য আমাদের দেশ থেকে বিদেশেও রপ্তানি হচ্ছে ডেওয়া ফল। ডেওয়া ফল বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন নামে পরিচিত সেই নামগুলো হল ঢেউয়া, ডেলোমাদার, ডেউফল, ঢেউফল , আরো বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন নামে পরিচিত।

ডেউয়া ফল মার্চ মাসে প্রায় পাতাহীন ডালপালায় ফুল আসে আর আগস্ট মাসে ফল পাকে। ডেউয়া ফল কাঁঠালের মত। ডেউয়া ফল কাঁচা অবস্থায় টক হলেও সেটা পাকলে অন্যরকম স্বাদ হয়। সেটার স্বাদ নাটক না মিষ্টি ।

ডেওয়া ফলের পুষ্টি

বিশেষজ্ঞরা বলেছেন ডেওয়া ফলে থাকে, জিংক , কপার, আয়রন,ম্যাঙ্গানিজ, ভিটামিন সি , বিটা ক্যারোটিন , তাছাড়াও আরও থাকে এন্টি - ভাইরাল,অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি এবং অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল সমৃদ্ধ পুষ্টি উপাদান। ডেওয়া ফলের বীজ স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী তবে সেটা বেশি খেলে আবার স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর প্রভাব ফেলতে পারে।

ডেওয়া ফলের উপকারিতা 

আমাদের স্বাস্থ্য ভালো রাখার জন্য যেমন পুষ্টিকর খাবার প্রয়োজন। তেমনি সেই সকল খাবার প্রয়োজন যে সকল খাবারে পুষ্টি উপাদান থাকে, আজকে আমরা আমাদের আর্টিকেলের মাধ্যমে আপনাদেরকে জানাবো এমন একটি পুষ্টিকর ফলের নাম যেটা আমাদের স্বাস্থ্য ভালো রাখার জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। প্রিয় পাঠক আজকে আমরা এমন একটি ফলের নাম বলবো যেটা আপনারা সকলেই কমবেশি খেয়েছেন বা চিনে থাকেন। ফলটির নাম হচ্ছে ডেউয়া ফল।

আপনারা যারা ডেওয়া ফলের উপকারিতা সম্পর্কে জানার জন্য বিভিন্ন ওয়েবসাইটে ঘুরাঘুরি করছেন তাদের জন্য আমাদের এই আজকের আর্টিকেলটি। আজকের আর্টিকেলটিতে আমরা আপনাদেরকে ডেওয়া ফল খাওয়ার উপকারিতা সম্পর্কে আপনাদের সুন্দরভাবে বিশ্লেষণ করে জানাবো। ডেওয়া ফলের উপকারিতা সম্পর্কে জানতে আজকের আর্টিকেলটি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ দিয়ে পড়ার জন্য বিশেষ ভাবে অনুরোধ করা হলো

স্ট্রোকের ঝুঁকি কমাইঃ ডেওয়া ফলে বিদ্যমান পটাশিয়াম রক্ত চলাচলে সহায়তা করে রক্তের চাপ নিয়ন্ত্রণে রাখে এবং হৃদরোগ ও স্ট্রোকের ঝুঁকি কমায়।

লিভার ভালো রাখেঃ আমাদের লিভার ভালো রাখার জন্য ডেওয়া ফল খাওয়া খুবই জরুরী। ডেওয়া ফলের পুষ্টি উপাদান এত বেশি যে সেই জন্য বিশেষজ্ঞরা বলেছেন ডেওয়া ফলে অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি এবং অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল পুষ্টি উপাদান রয়েছে যা আমাদের লিভার সুস্থ রাখতে সাহায্য করে। ডেউয়া ফল কাঁচা এবং পাকা দুই অবস্থাতেই খাওয়া যায়।

চুল পড়া রোধ করেঃ ডেওয়া ফলে থাকা ভিটামিন এ এবং সি সমৃদ্ধ হওয়ার কারণে চুলের গোরা শক্ত রাখে এবং চুল পড়া রোধে বিশেষ ভূমিকা পালন করে। ডেওয়া ফলের পুষ্টি উপাদান চুলের গোড়া মজবুত রাখতে সাহায্য করে।

মানসিক চাপ নিয়ন্ত্রণঃডেওয়া ফলে থাকা পুষ্টি উপাদান রক্ত সঞ্চালনে ভারসাম্য বজায় রাখে। যার ফলে মানসিক চাপ নিয়ন্ত্রণে থাকে।

চোখের সমস্যা দূর করেঃ যারা চোখের সমস্যায় ভুগেন তারা ডেউয়া ফল খেতে পারেন। ডেওয়া ফলে থাকা ভিটামিন এ এর পুষ্টি উপাদান থাকার কারণে রাতকানা রোগের আশঙ্কা কমে যায়।

ত্বক  ভালো রাখেঃ ডেওয়া ফলে অ্যান্টি - অক্সিডেন্ট ত্বকের বালি রেখা দূর হয়। যার ফলে আমাদের ত্বক সতেজ থাকে এবং সৌন্দর্যমন্ডিত হয়। ডেওয়া গাছের ছাল ও ত্বকের যত্নে ব্যবহার করা হয়। আমাদের ত্বকে কোন স্থানে ক্ষত হলে সেই স্থানে দেওয়া গাছের ছাল শুকিয়ে গুড়ো করে লাগালে দ্রুত সেরে যাবে।

পরিপাকতন্ত্র সুস্থ রাখেঃ পরিপাকতন্ত্র সুস্থ রাখতে ডেউয়া ফল বিশেষ ভূমিকা রাখে এবং বদহজম এবং কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে দূরে রাখতেও এ ফল বিশেষ ভূমিকা রাখে। এই ফলে থাকা ফাইবার আমাদের হজম হতে সহায়তা করে। ডেওয়া ফলের শুকনো বীজ গুঁড়ো করে খেলে পেটের অনেক সমস্যা দূর হয়।

মেদ কমাতে সাহায্য করেঃ যাদের অতিরিক্ত পরিমাণে মেদ ভুঁড়ি তাদের প্রতিদিন যদি এক থেকে দুই চামচ ডেওয়া ফলের রস খালি পেটে সকাল বেলা পানির সাথে মিশিয়ে খায় তাহলে মেদ কমাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

মুখের অরুচি দূর করেঃ যাদের খাবারের রুচি নেই তারা রুচি আনার জন্য দুই তিন চা চামচ ডেওয়া ফলের রসের সাথে লবণ আর গোলমরিচ মিশিয়ে যদি ভাত খাওয়ার আগে নিয়মিত কিছুদিন খাই তাহলে খাবারের অরুচি দূর হয়ে যাবে।

স্মৃতি শক্তি বাড়ায়ঃনিয়মিত ডেওয়া ফল খেলে আমাদের স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি পাবে। সে জন্য আমাদের নিয়মিত ডেওয়া ফল খাওয়া জরুরি।

লেখকের শেষ কথাঃ ডেওয়া ফল খাওয়ার উপকারিতা

প্রিয় পাঠক ধন্যবাদ আপনাদের এত সময় ধরে আমাদের এই পোস্টটি পড়ার জন্য। এই পোস্টটি পড়ে আপনারা জানতে পারলেন ডেওয়া ফল খাওয়ার উপকারিতা সম্পর্কে। আপনারা যারাডেওয়া ফল খাওয়ার উপকারিতা সম্পর্কে জানতেন না আজকের আর্টিকেলটি পড়ে তারাডেওয়া ফল খাওয়ার উপকারিতা সম্পর্কে জেনে গেলেন। বিভিন্ন বিষয়ে তথ্য পেতে নিয়মিত ভিজিট করুন আমাদের বায়জিদ আইটির ওয়েবসাইট

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url