পায়ের গোড়ালি ব্যথা কমানোর সহজ উপায়

প্রিয় পাঠক পায়ের গোড়ালি ব্যথা কমানোর সহজ উপায় সম্পর্কে জানতে চাচ্ছেন। এছাড়াও আপনি কি পায়ের গোড়ালি ব্যথা কমানোর সহজ উপায় কিংবা পায়ের গোড়ালি ব্যথার ব্যায়াম সম্পর্কে জানেন না। তাহলে আজকের এই পোস্টটি নিশ্চিন্তে পড়ে ফেলুন। আজকেরে আর্টিকেলে পায়ের গোড়ালি ব্যথা কমানোর সহজ উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য আলোচনা করেছি। তাই সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ে গোড়ালি ব্যথার সমাধানের বিভিন্ন তথ্য খুঁজে পাবেন এবং পরে উপকৃত হবেন।
পায়ের গোড়ালি ব্যথা কমানোর সহজ উপায়
আশা করি পায়ের গোড়ালি ব্যথা কমানোর সহজ উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানতে পেরেছেন। আজকেরে আর্টিকেলে পায়ের গোড়ালি ব্যথা কমানোর উপায়, পায়ের গোড়ালি ব্যথার ব্যায়াম, পায়ের গোড়ালে ব্যথার ঔষধের নাম ইত্যাদি যাবতীয় বিষয় গুরুত্বপূর্ণ সব আলোচনা করব। সুতরাং সম্পূর্ণ পোস্টটি মনোযোগ দিয়ে পড়তে থাকুন।

পায়ের গোড়ালি ব্যথা কমানোর সহজ উপায়ঃ ভূমিকা

বর্তমান সময়ে পায়ের গোড়ালে ব্যথা আমাদের কাছে একটি কমন বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। অনেক সময় হঠাৎ দেখি হাঁটতে ব্যথা অনুভব হচ্ছে। তবে চলাফেরা করার সময় পায়ের গোড়ালি ব্যথা আমরা ততটা গুরুত্ব দেই না। ফলে ধীরে ধীরে এই সমস্যা পরবর্তীতে মারাত্মক আকার ধারণ করে। তাই আমাদের সকলের উচিত যে কোন সমস্যার সমাধান অল্প অবস্থাতেই করা।


তবে সমস্যা সমাধান করার আগে জানতে হবে পায়ের গোড়ালি ব্যথা কমানোর সহজ উপায় গুলো সম্পর্কে। আজকের এই আর্টিকেলটি যাদের পায়ের গোড়ালি সমস্যায় ভুগছেন তাদের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ। পায়ের গোড়ালি ব্যাথা বিভিন্ন কারণ থাকতে পারে।

পায়ের গোড়ালি ব্যথা করে কেন

আপনি কি জানেন পায়ের গোড়ালে ব্যথা করে কেন অথবা পায়ের গোড়ালি ব্যথা কমানোর সহজ উপায় কি? পায়ের গোড়ালে ব্যথা দূর করার আগে জানতে হবে পায়ের গোড়ালে ব্যথা কেন হয়। সাধারণত ৪৫ থেকে ৬০ বছর বয়সী মানুষের মধ্যে পায়ের গোড়ালি ব্যথা সমস্যা বেশি দেখা দেয়। পায়ের পাতার নিচে গোড়ালি থেকে সামনে একটি শক্ত টিস্যু আছে যার নাম প্লান্টার ফাঁসা। এতে প্রদাহ হলে পায়ের গোড়ালিতে তীব্র ব্যথা হয়।

প্লান্টা ফ্যাসাইটিস ছাড়াও গেটে ব্যথা, অস্টিওমাইলাইটিস অথবা অন্য কোন কারণেও গোড়ালিতে ব্যথা হতে পারে। বিভিন্ন কারণে পায়ের গোড়ালি ব্যথা হতে পারে। সাধারণত যাদের একটু ওজন বেশি বা মোটা হয় তাদের পায়ের গোড়ালে ব্যথা বেশি দেখা দেয়। তবে দীর্ঘ সময় ধরে শক্ত জুতা বা হিল পড়ে তাদের পায়ের গোড়ালে ব্যথা সমস্যা হয়ে থাকে। গোড়ালির ব্যথার ফলে হাঁটাচলা করার সময় ব্যাথা অনুভূতি হয়, কখনো কখনো গোড়ালি ফুলে যেতেও পারে।


পায়ের গোড়ালি ব্যথা সাধারণত সকালের দিকে বেশি অনুভূতি হয়। তবে চিন্তার কোন কারণ নেই সাধারণত ব্যাথা নাশক ঔষধ সেবন করলে, এছাড়া প্রয়োজনীয় ফিজিওথেরাপি দিলে এবং কিছু নিয়ম-কানুন মেনে চললে এ ব্যথা দূর করা সম্ভব। এছাড়াও পায়ের গোড়ালি ব্যথা কমানোর সহজ উপায় খুব কম সময়ে এ ব্যাথা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

পায়ের গোড়ালি ব্যথা হলে করণীয়

  • সব সময় চেষ্টা করবেন নরম জুতা ব্যবহার করার। এছাড়াও জুতার মধ্যে নরম হিল বা কুশন ব্যবহার করতে পারেন
  • ব্যথার সময় কিছুদিন ব্যায়াম করা যাবে না। তবে ব্যথা কমে গেলে ব্যায়াম করবেন।
  • দেহে সঠিক ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে।
  • ঘুম থেকে ওঠার পর প্রথম ১৫ মিনিট গোড়ালে হাত দিয়ে ভালো করে ম্যাসাজ করুন। এরপর বিছানা থেকে নামুন।
  • খালি পায়ে দীর্ঘ সময় শক্ত স্থানে কখনো হাঁটাহাঁটি করবেন না।
  • অনেক ক্ষেত্রে পায়ের গোড়ালি ফাটা থেকেও ব্যথা হতে পারে।
  • সিঁড়ি দিয়ে উপরে ওঠার সময় ধীরে ধীরে হাতের সাপোর্ট দিয়ে উঠতে হবে, যাতে গোড়ালিতে বেশি ব্যথা বা চাপ না পড়ে।
  • গোড়ালি ব্যথাযুক্ত জায়গায় দুই থেকে তিন ঘন্টা পরপর বরফ বা আইস প্যাক ব্যবহার করুন।
  • দিনে অন্তত দুই থেকে তিনবার হালকা কুসুম গরম পানিতে ২০ মিনিট করে গোড়ায় ডুবিয়ে হালকা ব্যায়াম করুন।
  • চেয়ারে বসে পায়ের হিলে বলের মতো গরম পানির একটি বোতল ১৫ বার গোড়ান। এরপরে পায়ের পাশ পরিবর্তন করে এবং ধীরে ধীরে চাপ দিন।

পায়ের গোড়ালি ব্যথার ব্যায়াম

অনেকে আছেন যারা পায়ের গোড়ালি ব্যথা ব্যায়াম করার মাধ্যমে কমাতে চায়। তবে জানে না কি কি ব্যায়াম করতে হয় অথবা কিভাবে ব্যায়াম করলে পায়ের গোড়ালের ব্যাথা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। তাই আপনাদের সুবিধার্থে পায়ের গোড়ালি ব্যথার ব্যায়াম সম্পর্কে আলোচনা করলাম। পায়ের গোড়ালি ব্যথা হলে বেশ সহজ কিছু ব্যায়াম রয়েছে যা আপনার ব্যথা প্রতিরোধে উপকারে আসবে।
  • সকালে ঘুম থেকে উঠে হাত দিয়ে পায়ের পাতা, গোড়ালি ও আঙ্গুল সর্বত্র ম্যাসাজ করতে হবে ভালোভাবে। তবে মাসাজ করার সময় সরিষার তেল ব্যবহার করতে পারেন।
  • পায়ের গোড়ালি ব্যথা হলে বরফ জমানো পানির বোতল পায়ের নিচে দিয়ে রোল করতে হবে ৩ মিনিট। আপনি চাইলে কিছু সময় বিরতি দিয়েও এ ব্যায়ামটি ব্যবহার করতে পারেন। আশা করছি ব্যথা কমে যাবে।
  • উল্টো হয়ে শুয়ে পড়ুন। দুই পা যেন একেবারে সোজা থাকে। এরপরে ধীরে ধীরে একটি পা উপরের দিকে উঠানোর চেষ্টা করুন। এভাবে একটি পা উপরে তুলে দশ সেকেন্ড সোজা করে রাখুন। এর পরে ধীরে ধীরে পা নামিয়ে আরেকটি পা একই ভাবে ব্যায়াম করুন।
  • সিঁড়িতে পায়ের পাতার সামনের দিকে অংশ রেখে বাকি অংশ বাহিরে রাখতে হবে। এবার যে কোন এক পায়ের উপর ভর দিয়ে কয়েক সেকেন্ড দাঁড়িয়ে থাকতে হবে। পায়ের গোড়ালি ব্যথা দূর করতে এ ব্যায়ামটি অনেক কার্যকরী হবে যদি নিয়মিত অনুসরণ করে।
  • মেঝেতে অথবা চেয়ারে বসে যে কোন একটি পা সোজা রাখুন। এবার একটি তোয়ালে নিয়ে তোয়ালে দুই সাইড হাত দিয়ে ধরুন। এরপর পায়ের আঙ্গুল গুলোতে তোয়ালের মাঝ বরাবর আটকান। দুই হাত দিয়ে তোয়ালে টা আস্তে আস্তে টানতে থাকুন এতে পায়ের আঙ্গুলে টান পড়বে। এছাড়া এর সঙ্গে পায়ের গোড়ালের দিকেও টান পড়বে। এভাবে কিছুক্ষণ তোয়ালে ধরে থাকুন দেখবেন ধীরে ধীরে পায়ের গোলে ব্যথা কমে গেছে।

গোড়ালি ব্যথায় কখন ডাক্তার দেখানো উচিত

পায়ের গোড়ালি ব্যাথা সমস্যা দেখা দিলে আমরা বিভিন্ন ধরনের ঔষধ কিংবা ঘরোয়া উপায় ব্যবহার করি। কিন্তু এইসব ব্যবহার করে যখন কোন সমাধান হয় না তখন আমরা চিকিৎসকের শরণাপন্ন হই। কিন্তু অনেকেই জানে না পায়ের গোড়ালি ব্যথায় কখন ডাক্তার দেখানো উচিত। চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক বিস্তারিত।
  • পায়ের গোড়ালি অবশ হয়ে গেলে।
  • হাঁটাচলা করার সময় পা ভাজ করতে অসুবিধা হলে।
  • পায়ের পাতার ওপর ভর দিয়ে দাঁড়াতে সমস্যা ছলে।
  • জ্বর আসার সাথে গোড়ালি ব্যথা হলে অথবা গোড়ালি ব্যথার জন্য জ্বর আসলে।
  • পায়ের পাতা ও গোড়ালি ফুলে গেলে।
  • সাত দিনের বেশি গোড়ালি তে ব্যথা থাকলে অথবা হাঁটাচলা ছাড়া সব সময় গোড়ালিতে ব্যথা অনুভব করলে।
  • কাফ মাসেল প্রচন্ড ব্যথা হলে এবং ফুলে গেলে।
উপরোক্ত এই সকল লক্ষণগুলো দেখা দিলে অবহেলা না করে অবশ্যই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। কারণ উপরোক্ত লক্ষণগুলো অবহেলা করলে পরবর্তীতে মারাত্মক ক্ষতি হতে পারে।

পায়ের গোড়ালে ব্যথা কমানোর সহজ উপায়

পায়ের গোড়ালে ব্যথা ধীরে ধীরে অনেক বড় ধরনের সমস্যায় রূপান্তরিত হয়। এই সমস্যা বেশিরভাগ বয়স্কদের মাঝে দেখা দিল অল্প বয়স্কদের মধ্যেও মাঝে মধ্যে এ ধরনের সমস্যা লক্ষ্য করা যায়। তবে এতে চিন্তার কিছুই নেই। বিভিন্ন রকমের ব্যায়াম এবং ঔষধ এর মাধ্যমে পায়ের গোড়ালি ব্যথা কমানো সম্ভব। এছাড়াও কিছু ঘরোয়া পদ্ধতি অবলম্বন করে পায়ের গোড়ালি ব্যথা কমানোর সহজ উপায় সম্পর্কে আলোচনা করা হলোঃ

ম্যাসাজ করাঃ পায়ের গোড়ালি ব্যথা দূর করতে অন্যতম একটি পদ্ধতি হল ম্যাসাজ করা। ম্যাসাজ করার ফলে দ্রুত রক্ত সঞ্চলন বৃদ্ধি করে ব্যথা কমিয়ে দেয়। তাই পায়ের গোড়ালিতে অন্তত ১৫ মিনিট নারিকেল অথবা সরিষার তেল দিয়ে মাসাজ করলে খুব ভালো ফল পাওয়া যায়।

আরো পড়ুনঃ শীতে পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করার ঘরোয়া উপায়

হলুদঃ হলুদ আমাদের ত্বকের বিভিন্ন সমস্যা সমাধান করে থাকে। এছাড়া পায়ের গোড়ালি ব্যথা প্রতিরোধ হলুদ খাওয়া চমৎকার একটি ঘরোয়া উপায়। হলুদে ব্যথা প্রতিরোধী অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে। হলুদের গুড়োর সঙ্গে সামান্য পরিমাণে অলিভ অয়েল মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণটি আপনার পায়ের গোড়ালে ব্যথার জায়গায় লাগান। এছাড়াও দুধ অথবা মধুর সাথে সামান্য হলুদের গুঁড়া দিয়ে পান করতে পারেন। আশা করি আপনার ব্যথা অনেকটা কমে যাবে।

আদার ব্যবহারঃ কোন ধরনের ব্যাথা ও প্রদাহ কমাতে আদা গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। আদা হতে পারে আপনার পায়ের গোড়ালে ব্যথা সমস্যা সমাধানের একটি অন্যতম উপায়। আদাতে ব্যথা নাশক ঔষধি গুণ রয়েছে। তাই আদা বেটে পেস্ট তৈরি করে নিন। এই পেস্টের মধ্যে সামান্য পরিমাণ সরিষার তেল যোগ করুন। এ দুটি উপাদান ভালোভাবে একসাথে মিশিয়ে মিশ্রণ তৈরি করে নিন। এরপরে এই মিশ্রণটি ব্যথার জায়গায় লাগিয়ে রাখুন। নিয়মিত এই পদ্ধতি অনুসরণ করলে ইনশাআল্লাহ ভালো ফলাফল পাবেন।

বেকিং সোডাঃ বেকিং সোডা পায়ের গোড়ালি ব্যথা দূর করতে খুবই কার্যকর। বেকিং সোডা ও পানি একসাথে মিশিয়ে মিশ্রণ তৈরি করে নিন। এ মিশ্রণটি ব্যথার জায়গায় ভালোভাবে মাখিয়ে রাখতে হবে। পায়ের গোড়ালিতে এই পেস্ট মাখানোর পর পরিষ্কার ব্যান্ডেজ কাপড় দিয়ে পেঁচিয়ে বেঁধে রাখতে হবে। ঘুমানোর সময় এই পদ্ধতি অবলম্বন করলে ব্যথা কমে যাবে ইনশাল্লাহ।

পায়ের গোড়ালি ব্যথার ঔষধের নাম

পায়ের গোড়ালি ব্যথায় ডাক্তাররা প্যারাসিটামল জাতীয় ঔষধ খেতে পরামর্শ দিয়ে থাকেন। বাজারে ফার্মেসিতে বিভিন্ন ধরনের ব্যথানাশক  ঔষধ পাওয়া যায়। তাই ডাক্তাররা অনেক সময় স্টেরয়েড জাতীয় ঔষধ এবং ইনজেকশন এর পরামর্শ দিয়ে থাকেন রোগীকে। এগুলো নিয়মিত সেবন করলে পায়ের গোড়ালি ব্যথা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

পায়ের গোড়ালি ব্যথায় হোমিও ঔষধের নাম

পায়ের গোড়ায় ব্যথা দূর করতে আমরা বিভিন্ন ধরনের ঔষধ সেবন করে থাকি। অনেকেই আছে যারা সহজে ঔষধ খাওয়ার চেয়ে হোমিও ঔষধ খাওয়া বেশি পছন্দ করে থাকে। আপনিও যদি সেরকম হয়ে থাকেন তাহলে আপনার জন্য পায়ের গোড়ালি ব্যথা হোমিও ঔষধের নাম সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। পায়ের গোড়ালে ব্যথা কমানোর জন্য হোমিওপ্যাথিতে বেশ কিছু ঔষধ রয়েছে।

রাসটক্স
যাদের সকালে হাটতে গেলে ব্যথা অনুভূতি হয় এবং পরবর্তীতে কমে যায় এমন লক্ষণ থাকলে এই ঔষধটি সেবন করতে পারেন। এই ঔষধ টি পায়ের গোড়ালি ব্যথার জন্য দারুন কার্যকর।

ব্রায়োনিয়া আলব
ব্রায়োনিয়া আলব এটি হোমিও ঔষধ যা আপনার পায়ের গোয়ালে ব্যথা কমাতে সহায়তা করে। যাদের পায়ের গোড়ালি নড়াচড়া করলে ব্যথা বৃদ্ধি পায় তাদের এই ওষুধটি বেশ কার্যকর। এই ওষুধটি ব্যবহারের ফলে খুব কম সময়ে পায়ের গোড়ালি ব্যথা দূর করা সম্ভব। আশা করছি পায়ের গোড়ালি ব্যথা কমানোর সহজ উপায় সম্পর্কে সংশ্লিষ্ট বিষয়সমূহ সম্পূর্ণভাবে জেনে নিয়েছেন।

পায়ের গোড়ালি ব্যথা কমানোর সহজ উপায়ঃ সর্বশেষ কথা

প্রিয় বন্ধুরা আশা করি সম্পূর্ণ পোস্ট মনোযোগ সহকারে পড়ার পর আপনারা পায়ের গোড়ালি ব্যথা কমানোর সহজ উপায় সম্পর্কে মোটামুটি সকল বিষয়ে ধারণা পেয়েছেন। পায়ের গোড়ালে ব্যথা এমন একটি সমস্যা যার কারণে আমাদের চলাচল এবং যেকোনো কাজের সমস্যা সৃষ্টি করে। পায়ের গোড়ালি যখন সামান্য পরিমাণে ব্যথা থাকে তখন এটা নিয়ে আমরা অবহেলা করি। কিন্তু ব্যথা যখন খুব বেশি বেড়ে যায় তারপর এটা নিয়ে আমরা চিন্তা করি।

যা একেবারেই ঠিক নয়। তাই আপনাদের সুবিধার্থে পায়ের গোড়ালি ব্যথা কমানোর সহজ উপায় ও ব্যায়াম এবং ঔষধের নাম উপরে উল্লেখ করেছি। আশা করছি সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ে আপনি উপকৃত হয়েছেন। সুতরাং পোস্টে পড়ে উপকৃত হয়ে থাকলে এখনই পোস্টটি বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করে জানিয়ে দিন। এই ধরনের আরো চমকপ্রদ ও কার্যকরী স্বাস্থ্য বিষয় টিপস পেতে নিয়মিত আমার লেখা আর্টিকেল পড়ুন।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url