শীতে পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করার ঘরোয়া উপায়

প্রিয় পাঠক, শীতে পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করার ঘরোয়া উপায় সম্পর্কে জানতে চাচ্ছেন। তাহলে এই আর্টিকেলটি আপনার জন্য। আজকের আর্টিকেলে আমরা শীতে পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করার ঘরোয়া উপায় এবং পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করার ক্রিমের নাম সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব। এ আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ মনোযোগ সহকারে পড়লে পায়ের গোড়ালি ফাটা সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানতে পারবেন। তাহলে দেরি না করে শীতে পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করার ঘরোয়া উপায় এই আর্টিকেলটি পড়ে ফেলুন।
শীতে পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করার ঘরোয়া উপায়
আশা করছি সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ে আপনার প্রয়োজনীয় তথ্য খুজে পাবেন এবং উপকৃত হবেন। আপনাদের সুবিধার্থে শীতে পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করার ঘরোয়া উপায় সম্পর্কে তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। তাই গোড়ালি ফাটা দূর করার উপায় জানতে হলে সম্পূর্ণ পোস্টে পড়তে থাকুন।

পায়ের গোড়ালি ফেটে যাওয়ার কারণ

পায়ের গোড়ালি ফেটে যাওয়া একটা কমন সমস্যা। আমাদের সবারই কম বেশি পায়ের গোড়ালি ফেটে যায়। তবে বিশেষ করে শীতকালে পায়ের গোড়ালি ফাটার সমস্যা বেশি লক্ষ্য করা যায়। এছাড়াও বয়স বাড়ার সাথে সাথেও পায়ের গোড়ালি ফাটার বিষয়টা আরো বেশি লক্ষ্য করা যায়। পায়ের গোড়ালি ফাটার সমস্যা মারাত্মক হতে পারে। তাই শীতে পায়ের গোড়ালির বিশেষ যত্ন নেওয়া প্রয়োজন। কারণ পরিচর্যা না করলে পায়ের গোড়ালি ফেটে ব্যথা অথবা রক্তক্ষরণ হতে পারে।


এছাড়াও পায়ের গোড়ালি ফাটা দীর্ঘদিন থাকলে এর থেকে ইনফেকশন হতে পারে, পা ব্যথা সহ ফুলে যাওয়া এবং স্বাভাবিক চলাচল ব্যাহত হবে। যদি পায়ের গোড়ালি ফেটে থাকে, তবে পা ঢাকা জুতা না পরে বাহিরে বের হলে খুবই খারাপ দেখতে লাগে। তবে অনেকেই পা ফেটে যাওয়ার কারণ সম্পর্কে জানেনা অথবা শীতে পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করার ঘরোয়া উপায় এ সম্পর্কেও অবগত নয়। তাহলে জেনে নিন পায়ের গোড়ালি ফেটে যাওয়ার কারণ গুলো সম্পর্কে।
  • পায়ের গোড়ালি ফাটার অন্যতম উল্লেখযোগ্য কারণ ভিটামিন এর অভাব।
  • পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি না খাওয়া এবং দীর্ঘসময় শুষ্ক পরিবেশে হাঁটাহাঁটি করা। পানি শূন্যতা দূর করতে প্রতিদিন ৮ থেকে ১০ গ্লাস পানি পান করুন।
  • পরিবেশে আদ্রতার পরিমান কম থাকা।
  • দীর্ঘক্ষণ খালি পায়ে থাকা এবং হাটাহাটি করা
  • ধুলাবালির মধ্যে খালি পায়ে দীর্ঘ সময় কাজ করা।
  • খুব গরম পানিতে গোসল করলে।
  • এক্সিমা রোগের কারণে পায়ের গোড়ালে ফেটে যেতে পারে।
  • অতিরিক্ত পরিমাণে পা ঘেমে যাওয়া।
  • এছাড়াও সোরিয়াসিস রোগের ক্ষেত্রেও হতে পারে।
  • জিনগত বা বংশগত কারণে হতে পারে।
  • ডায়াবেটিস রোগের ক্ষেত্রেও পায়ের গোড়ালি ফাটা দেখা দিতে পারে।

পায়ের গোড়ালি ফাটে কোন ভিটামিনের অভাবে

শীতের আবহাওয়া আসলে পায়ের গোড়ালি ফাটার শুরু হয়। তবে অনেকেরই সারা বছরে পায়ের গোড়ালি ফাটা সমস্যা হয়ে থাকে। পায়ের গোড়ালি ফেটে যাওয়ার একাধিক কারণ থাকতে পারে। এর মধ্যে অন্যতম প্রধান কারণ হচ্ছে ভিটামিনের অভাব। আমাদের শরীরে ভিটামিনের অভাব হলে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দেখা দেয় যার মধ্যে পায়ের গোড়ালি ফাটা । তবে অনেকেই আছে এই বিষয়ে কোন ধারণা নেই।


তাদের জন্য শীতে পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করার ঘরোয়া উপায় এই অংশ খুবই গুরুত্বপূর্ণ। চলুন তাহলে পায়ের গোড়ালি ফাটে কোন ভিটামিনের অভাবে জেনে নেই। আপনি হয়তো জানেন ভিটামিন বি, ভিটামিন ই এবং ভিটামিন সি এর উপকারিতা গুণ সম্পর্কে। ভিটামিন বি, ভিটামিন সি, ও ভিটামিন ই আমাদের ত্বকের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে এবং শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে।

ভিটামিন বি, সি, ই এর অভাব হলে আমাদের শরীরে বা ত্বকে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা সৃষ্টি হয়। এ সমস্যাগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো আমাদের পায়ের গোড়ালি ফেটে যায়। তাই পায়ের গোড়ালি ফাটা বিষয়ে সবাইকে যত্নশীল হতে হবে। যদি আপনার দীর্ঘদিন যাবত পায়ের গোড়ালি ফাটা থাকে এবং সহজে ভালো হয় না । এটা হতে পারে কোন রোগের লক্ষণ। তাহলে অবহেলা না করে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

গরমে পায়ের গোড়ালে ফেটে যাওয়ার কারণ

শীতে আবহাওয়া শুষ্ক থাকার কারণে আমাদের পায়ের গোড়ালি ফাটার এবং ঠোঁট ফাটা সমস্যা দেখা যায়।বর্তমানে শুধু শীতকালে নয় অনেকেরই সারা বছরে পায়ের গোড়ালি ফাটছে। গরমে পায়ের গোড়ালি ফাটার অন্যতম কারণ হলো আমাদের শরীরে পর্যাপ্ত পরিমাণে পানির ঘাটতি হলে। সাধারণত গরমের সময় শরীর প্রচন্ড ঘেমে যায় এবং শরীর থেকে পানি বের হয়ে যায়। এছাড়াও গরমের সময় বায়ু দূষণের পরিমাণ বেড়ে যায়।

আবহাওয়ার পরিবর্তন,অতিরিক্ত ধুলাবালি, দূষণের কারণে পায়ের গোড়ালির চামড়া মোটা হয়ে যায় অর্থাৎ পায়ের গোড়ালি ফেটে যাওয়া শুরু হয়। ছেলেদের তুলনায় মেয়েদের পায়ের গোড়ালি ফাটার সমস্যা অনেক বেশি। দীর্ঘসময় খালি পায়ে থাকা, দাঁড়িয়ে কাজ করা, পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি না খাওয়া ইত্যাদি কারণে গরমে পায়ের গোড়ালি ফেটে যায়। পায়ের গোড়ালি ফাটা যেমন দেখতে খারাপ লাগে তেমনি আপনার ব্যক্তিত্ব নষ্ট হয়।


এছাড়াও বিভিন্ন ধরনের রোগ ব্যাধি থাকলে যেমন অ্যাক্সিমা, থাইরয়েড, ডায়াবেটিস অথবা ভিটামিন মিনারেল এবং জিংকের অভাবে শরীরে শুষ্কতা বেড়ে যায় যার ফলে পায়ের গোড়ালি ফেটে যায়। মেয়েদের মত ছেলেদের পায়ের গোড়ালি ফাটা সমস্যা বেশি হয়ে থাকে। বাহিরে চলাফেরা করলে,দীর্ঘ সময় কাজ করার কারণে ছেলেদের ত্বক শুষ্ক হয়ে যায়। তাই ছেলে মেয়ে উভয়েই গরমে পায়ের গোড়ালি ফেটে যায়।

পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করার ক্রিমের নাম

আপনি কি পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করার ক্রিমের নাম সম্পর্কে জানতে চান। তাহলে আজকের এই আর্টিকেলের এই পর্বটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। বেশিরভাগ শীতকালে আমরা বিভিন্ন রকমের ক্রিম ব্যবহার করি। তবে অনেকেই বিভিন্ন ধরনের ক্রিম ব্যবহার করেও পায়ের গোড়ালি ফাটা সমস্যা থেকে মুক্তি পায় না। এছাড়াও শীতে পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করার ঘরোয়া উপায় সম্পর্কে জানেনা। চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করার ক্রিমের নাম সম্পর্কে।
  • হিমালায়া ওয়েলনেস ফুটকেয়ার ক্রিম
  • পতঞ্জলি ক্রাক হিল ক্রিম
  • খাদি জ্যাসমিন এন্ড গ্রিনটি হারবাল ফুট ক্রিম
  • ভাদি হারবাল ফুট ক্রিম
  • হিলমেট ক্রাকড হিলস রিপেয়ার স্পেশালিস্ট ক্রিম
  • অ্যাভন ফুটওয়ার্কস ক্র্যাকডহিল রিলিফ ক্রীম
উপরের প্রতিটি ক্রিম পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করতে খুবই উপকারী। এই ক্রিম গুলো ব্যবহারে ফলে ত্বক নরম এবং মসৃণ করতে সাহায্য করে। তবে ক্রিমগুলো ব্যবহারের আগে অবশ্যই পায়ের গোড়ালে ভালো করে পরিষ্কার করে নেবেন। তারপর রাতে ঘুমানোর সময় ক্রিমগুলো লাগিয়ে নিন। বেশ কয়েকদিন ব্যবহারের মধ্যেই দেখবেন পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর হয়ে যাবে। এছাড়াও আপনি চাইলে ঘরোয়া উপায় ব্যবহার করতে পারেন। তাই আপনাদের জন্য শীতে পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করার ঘরোয়া উপায় সম্পর্কে পূর্বে আলোচনা করেছি। ঘরোয়া উপায় ব্যবহার করে আপনার অপচয় রোধ হবে।

শীতে হাত পা ফাটা দূর করার উপায়

শীতকালে হাত পা ফাটা একটি সাধারণ সমস্যা। হাত-পা ফাটার মূলত কারণ শুষ্ক আবহাওয়া, অতিরিক্ত ঠান্ডা, ধুলো ময়লা ইত্যাদি কারণে এ সমস্যা দেখা যায়। শীতের আবহাওয়ার সাথে ঠোট, পায়ের গোড়ালি ফাটা, ও হাত-পা ফেটে যায়। শীতে আদ্রতা কম থাকায় হাত-পা রুক্ষ হয়ে যায়। এ সময় অবহেলা বা সঠিক যত্ন না নিলে এর থেকে বড় ধরনের সমস্যা হতে পারে। তাই জেনে রাখুন হাত পা ফাটা দূর করার সহজ উপায় ।
  • হাত ও পা ফেটে যাওয়া থেকে মুক্তি পেতে নিয়মিত অলিভ অয়েল মাসাজ করতে পারেন। এটি আপনার ত্বকে ময়েশ্চারাইজ হিসেবেও দারুন কাজ করে।
  • হালকা কুসুম গরম পানির মধ্যে শ্যাম্পু এবং লেবুর রস বা ১ চামচ মধু মিশিয়ে তাতে ১০ মিনিট হাত পা ডুবিয়ে রাখুন। এরপর পায়ের চামড়া নরম হয়ে গেলে ফুড স্ক্রাবারের সাহায্যে ভালো করে স্ক্রাব করে নিন। হাত পা শুকিয়ে গেলে পেট্রোলিয়াম জেলি অথবা ময়েশ্চারাইজ ক্রিম ব্যবহার করুন।
  • শীতে ধুলাবালি থেকে পাকের রক্ষা করার জন্য গোড়ালি ঢাকা জুতা ব্যবহার করুন। এছাড়াও অতিরিক্ত ঠান্ডা আবহাওয়ায় পায়ের মোজা পড়ুন।
  • সব সময় লক্ষ্য করে দেখবেন যেন হাত পা ভেজা অথবা পানি লেগে না থাকে। গোসল বা অজু করার পর তোয়ালে দিয়ে ভালো করে হাত-পা মুছে রাখবেন।
  • ভ্যাসলিন অথবা পেট্রোলিয়াম জেলি হাত ও পায়ের সুরক্ষায় খুব উপকারী। প্রতিদিন গোসলের পর অথবা রাতে ঘুমানোর আগে ভ্যাসলিন ব্যবহার করুন এতে আপনার তো রুক্ষ থেকে মুক্তি পাবে।
  • পাকা কলার পেস্ট তৈরি করে হাতে ও পায়ে ব্যবহার করতে পারেন। সপ্তাহে অন্তত দুই থেকে তিনবার ব্যবহার করুন ত্বক লজ্জানরম ও কোমল হবে।
উপরের পদ্ধতি গুলো অনুসরণ করে শীতে হাত পা ফাটা থেকে ত্বককে সুরক্ষা করতে পারবেন। শীতে ত্বকের সুরক্ষায় বেশি বেশি শাকসবজি এবং পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পান করুন। এছাড়াও ঘরোয়া কিছু উপায়ে খুব সহজেই হাত পা ফাটা দূর করতে পারবেন।

শীতে পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করার ঘরোয়া উপায়

শীতকালে সকলের প্রধান একটি সমস্যা হলো পায়ের গোড়ালি ফাটা। শীতকালে সবাই ত্বকের একটু বাড়তি যত্ন নিয়ে থাকেন। তবে পায়ের গোড়ালির দিকে যত্ন একটু কমেই যত্ন নেওয়া হয়। যার ফলে পায়ের গোড়ালি ফেটে যায়। পায়ের গোড়ালি ফাটার কারণে অনেকেই বাহিরে যেতে লজ্জা পায়। পায়ের গোড়ালি ফাটার কারণে সুন্দর জুতা বা স্যান্ডেল পড়তে পারে না। শীতের আবহাওয়া ত্বক হয়ে ওঠে রুক্ষ-শুষ্ক।

এছাড়াও হাত-পা সহ পায়ের গোড়ালি ফেটে যায়। তাই পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করতে ঠিকমতো পায়ের যত্ন নিতে হবে। তো কিভাবে যত্ন নিবেন? আজকে এ পোস্টে আপনাদের জন্য কিভাবে সঠিক পায়ের যত্ন নেওয়া যায় এবং শীতে পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করার ঘরোয়া উপায় গুলো কি কি সে সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করবো।
  • মধু 
  • নারকেল তেল
  • গ্লিসারিন ও গোলাপজল
  • অ্যালোভেরা
  • অলিভ অয়েল
  • লেবু
  • বেকিং সোডা
  • মৌজা ব্যবহার
মধু
পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করতে কুসুম গরম পানির মধ্যে এক কাপ মধু মিশিয়ে নিন। এই কুসুম গরম পানির মধ্যে ১০ থেকে ১৫ মিনিট পা ভিজিয়ে রাখুন। এরপর পায়ের চামড়া নরম হয়ে গেলে ফুট স্ক্রাবারের সাহায্যে ভালো করে স্ক্রাব করে নিন। এরপরে খুব অল্প সময়ে পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর হয়ে যাবে।

নারকেল তেল
পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করতে নারকেল তেল খুব ভালো কাজ করে। তাই নিয়মিত নারকেল তেল দিয়ে পায়ের গোড়ালি ম্যাসাজ করুন। কয়েকদিন নারকেল তেল ব্যবহারেই দেখবেন পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর হয়ে গেছে।

গ্লিসারিন ও গোলাপজল
শীতকালে হাত পায়ের রুক্ষতা দূর করতে গ্লিসারিন ও গোলাপজল দারুন কার্যকর। এছাড়াও পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করে পায়ের গোড়ালিকে নরম এবং মসৃণ রাখতে সাহায্য করে। তাই একটি পাত্রে এক চামচ গোলাপ জলের সঙ্গে সমপরিমাণ গ্লিসারিন এবং লেবুর রস মিশ্রণ করে প্রতিদিন রাতে পায়ের গোড়ালিতে লাগিয়ে রাখুন। নিয়মিত কিছুদিন ব্যবহারই দেখবেন পায়ের গোড়ালি ফাটা ভালো হয়ে যাবে।

অ্যালোভেরা
পায়ের গোড়ালি ফাটা প্রতিরোধে অ্যালোভেরা খুব কার্যকর। অ্যালোভেরা তে রয়েছে ভিটামিন এ,সি,ই এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা পায়ের গোড়ালি ফেটে যাওয়া খুব সহজেই সারিয়ে তুলতে সহায়তা করে। পা ধোয়ার পর ভালো করে মুছে এলোভেরা জেল নিয়মিত লাগালে কার্যকর ফল পাবেন।

অলিভ অয়েল
পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করতে নিয়মিত অলিভ অয়েল ব্যবহার করুন। হাতে সামান্য পরিমাণ অলিভ অয়েল নিয়ে পায়ের গোড়ালিতে ম্যাসাজ করুন। প্রতিদিন রাতে ঘুমানোর আগে পায়ের গোড়ালিতে অলিভ অয়েল ব্যবহার করুন। এতে পা কে শুষ্ক হওয়া থেকে মুক্তি দেয় এবং পা নরম রাখতে সাহায্য করে। যার ফলে পায়ের গোড়ালি ফাটা থেকে রক্ষা করে।

আরো পড়ুনঃ কফি দিয়ে ত্বক ফর্সা করার সেরা ঘরোয়া উপায় জেনে নিন

লেবুর রস
আমরা সকলেই জানি লেবুতে ভিটামিন সি থাকে। আর এই ভিটামিন সি ত্বকের সৌন্দর্য ধরে রাখতে সাহায্য করে। তাই ঘুমানোর পূর্বে লেবুর রসের সঙ্গে পেট্রোলিয়াম জেলি বা ভ্যাসলিন মিশিয়ে পায়ের গোড়ালিতে লাগিয়ে ঘুমান। অল্প কিছুদিন ব্যবহারে উপকার পাবেন।

বেকিং সোডা
কুসুম কুসুম গরম পানির মধ্যে ২ থেকে ৩ চামচ বেকিং সোডা দিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। এরপর ১০ থেকে ১৫ মিনিট এই পানির মধ্যে পা ডুবিয়ে রাখুন। এরপর পায়ের গোড়ালি হালকা স্ক্রাব করে ধুয়ে ফেলুন এবং তোয়ালে দিয়ে ভালো করে মুছে নিন। এরপরে পায়ের গোড়ালিতে ময়েশ্চারাইজার বা পেট্রোলিয়াম জেলি ব্যবহার করুন। এইভাবে কয়েক সপ্তাহ ব্যবহার করলে অনেক উপকার পাবেন।

সরিষার তেল ও মোম
দুই চামচ সরিষার তেল হালকা কুসুম গরম করে এতে পরিমাণ মতো মোম ফেলে দিন এবং আস্তে আস্তে নাড়ুন। যখন দেখবেন মোম গলে সরিষার তেলের সঙ্গে মিশে গেছে তখনই এটি ঠান্ডা হওয়ার পূর্বে একটি কৌটার ঢেলে নিন। এরপর পা ভালো করে পরিষ্কার করে ধুয়ে শুকনো কাপড় দিয়ে মুছে সরিষার তেল ও মোমের এই মিশ্রণটি ভালোভাবে পায়ের গোড়ালির ফাটা অংশে লাগিয়ে নিন। এরপর পায়ে অবশ্যই মোজা পড়ে নিবেন। এই পদ্ধতিটি রাতে ব্যবহারে খুব ভালো উপকার পাবেন।

পাকা কলার পেস্ট
পাকা কলা ভালো করে পেস্ট তৈরি করে নিন। এরপর এতে এক চামচ নারিকেল তেল এবং এক চামচ ডাবের পানি দিয়ে ভালো করে মিশ্রণ তৈরি করে নিন। পা পরিষ্কার করে এই মিশ্রণটি লাগিয়ে রাখুন। ১০ থেকে ১৫ মিনিট রেখে হালকা কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে নিন।

মোজা ব্যবহার
শীতকালে ত্বকের রুক্ষতা দূর করতে মৌজা ব্যবহার করুন। মজা ব্যবহারে পায়ের গোড়ালির ত্বক শুষ্ক হওয়া থেকে রক্ষা করে। তাই শীতকালে ভালো মানের পায়ে মোজা ব্যবহার করুন।

শেষ কথা

প্রিয় বন্ধুরা, আজকের আর্টিকেলটি পড়ার পরে আপনি শীতে পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করার ঘরোয়া উপায় সম্পর্কে যা জানতে পেরেছেন। তাই যাদের এ ধরনের সমস্যা রয়েছে তার ওপরে উল্লেখিত ঘরোয়া উপায় গুলো অবলম্বন করতে পারেন । উপরে উল্লেখিত শীতে পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করার ঘরোয়া উপায় এবং পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করার ক্রিমের নাম গুলো অনেক বেশি কার্যকর।

তবে যদি ঘরোয়া উপায় গুলো ব্যবহার করেও এ সমস্যা সমাধান করতে না পারেন তাহলে একজন ভালো চর্মরোগ চিকিৎসকের সাথে পরামর্শ নিন। এই আর্টিকেলটি পরে যদি আপনার ভালো লাগে তাহলে অবশ্যই বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করবেন। সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়ার জন্য অনেক অনেক ধন্যবাদ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url