চুল দ্রুত লম্বা ও ঘন করার সহজ উপায় বিস্তারিত জেনে নিন

 

বাঙালি নারীদের কাছে লম্বা ও ঘন চুলের আলাদা একটা গুরুত্ব রয়েছে। আপনি কি চুল দ্রুত লম্বা ও ঘন করতে চান। তাই চুল দ্রুত লম্বা ও ঘন করার সহজ উপায় খুঁজছেন। তাহলে আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়ুন। চুল দ্রুত লম্বা ও ঘন করার সহজ উপায় এবং চুল তাড়াতাড়ি লম্বা করার উপায় এই আর্টিকেলে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করেছি। আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়লে আপনি চুল দ্রুত লম্বা ও ঘন করার সহজ উপায়  বিস্তারিত তথ্য পেয়ে যাবেন।
চুল দ্রুত লম্বা ও ঘন করার সহজ উপায়
আশা করি চুল দ্রুত লম্বা ও ঘন করার সহজ উপায় আর্টিকেলটি পড়ে আপনি উপকৃত হবেন। আজকের এ আর্টিকেলটি পড়লে চুল দ্রুত লম্বা ও ঘন করার সহজ উপায় বিস্তারিত তথ্য জানতে পারবেন। তাহলে দেরি না করে সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ে ফেলুন।

ভূমিকা

লম্বা ও ঘন চুল পছন্দ করে না এমন মানুষ হয়তো খুঁজে পাওয়া যাবে না। নারীদের সৌন্দর্যে বৃদ্ধিতে চুলের অবদান অনস্বীকার্য। অনেকে এই চুল দিয়ে নিজে নানা রকম রূপ পরিবর্তন করতে পারে। অনেকে চুল বড় আবার ছোট রাখতে পছন্দ করে। তবে চুলের যত্ন নেওয়ার কিছু উপায় রয়েছে।কিছু নিয়ম মেনে চললে আপনি চুল লম্বা ও ঘন করতে পারবেন। এর জন্য আপনাকে অবশ্যই চুল দ্রুত লম্বা ও ঘন করার সহজ উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে হবে। লম্বা ও ঘন কালো চুল পেতে অবশ্যই নিচের নিয়মগুলো মেনে চলার চেষ্টা করুন।

চুল তাড়াতাড়ি লম্বা করার উপায়

চুল নারীদের সৌন্দর্যের একটি অংশ। প্রত্যেকটা নারী লম্বা ও ঘন চুল চায় । কিন্তু আপনি চুল তাড়াতাড়ি লম্বা করার উপায় জানেন না। গাছের বৃদ্ধিতে আমরা যেমন সার ব্যবহার করি তেমনি চুল লম্বা হওয়ার জন্য কিছু উপায় রয়েছে যেগুলো ব্যবহার করে চুল তাড়াতাড়ি লম্বা করা যায়। বর্তমানে কর্মব্যস্ত জীবনে চুলের যত্ন নেওয়ার সময় হয় না।
কিন্তু আপনি চাইলে অল্প সময় ব্যয় করে চুল তাড়াতাড়ি লম্বা করতে পারবেন। নিয়মিত জীবন যাপনের ফাঁকে সাধারণ ঘরোয়া উপায়ে চুল তাড়াতাড়ি লম্বা করা যায়। আসুন তাহলে জেনে নিন চুল তাড়াতাড়ি লম্বা করার উপায় গুলো-
  • চুল তাড়াতাড়ি লম্বা করতে চাইলে চুলে নিয়মিত তেল ম্যাসাজ করতে হবে। তেল দিয়ে মাথার ত্বক হালকা ম্যাসাজ করতে হবে। কারণ এতে মাথার ত্বকের রক্ত চলাচল ভালোভাবে করতে পারবে। এতে করে চুলের গোড়ায় পর্যাপ্ত পরিমাণ পুষ্টি পৌঁছাবে। এর ফলে চুল ঘন ও দ্রুত লম্বা হবে এবং চুলের স্বাস্থ্যও ভালো থাকবে।
  • চুলের বৃদ্ধির জন্য ভিটামিনের অবদান গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। চুলে পর্যাপ্ত পরিমাণে ভিটামিন না পেলে চুলের বৃদ্ধি কমে যায় এবং চুল পড়া শুরু হয়। ভিটামিন সমৃদ্ধ খাবার খেলে চুল তাড়াতাড়ি লম্বা হয়। এছাড়াও ভিটামিন বি সমৃদ্ধ ঔষধ গুলো খেতে পারেন এবং চুল তাড়াতাড়ি লম্বা হবে।
  • মাথার ত্বক পরিষ্কার করার জন্য শ্যাম্পু ব্যবহার করা হয়। তবে সেটার জন্য আপনাকে সঠিক শ্যাম্পু ব্যবহার করতে হবে। আপনার চুলের ধরন অনুযায়ী কোন শ্যাম্পু আপনার চুল তাড়াতাড়ি লম্বা হবে সেটা নিজেই বাছাই করতে হবে। চুলের জন্য সব সময় ভেষজ উপাদান দিয়ে তৈরি শ্যাম্পু গুলো ব্যবহার করার। এতে আপনার চুল তাড়াতাড়ি লম্বা করার পাশাপাশি চুল পড়া রোধ করবে।
  • চুল ধোয়ার  সময় কখনো গরম পানি ব্যবহার করবেন না এতে আপনার চুলের আদ্রতা এবং চুল পড়া সমস্যা হতে পারে। চুল ধোয়ার সময় সব সময় ঠান্ডা পানি ব্যবহার করুন। যাদের ঠান্ডা সমস্যা নেই তারা চাইলে ঠান্ডা পানিতে চুল কিছুক্ষণ ভিজিয়ে রাখতে পারে এতে চুলে স্বাভাবিক বৃদ্ধির গতি বাড়বে। 
  • চুল কালার বা স্টাইলিং করার যন্ত্রপাতি ব্যবহার করলে চুলের ক্ষতি হয়। চুল স্ট্রেটনার বা কার্লিং এর গরম আয়রন চুলের ব্যবহার করলে চুলের স্বাভাবিক বৃদ্ধি নষ্ট হয়ে যায় এবং চুল দুর্বল হয়ে পড়ে। তাই যত এগুলো কম ব্যবহার করবেন তত আপনার চুল স্বাস্থ্যসম্মত থাকবে।
  • চুল তাড়াতাড়ি লম্বা করতে চাইলে অবশ্যই সপ্তাহের তিন থেকে চার দিন প্রাকৃতিক হেয়ার প্যাক গুলো ব্যবহার করুন। এতে চুল তাড়াতাড়ি লম্বা করার পাশাপাশি চুল পড়া প্রতিরোধ করবে।

চুল লম্বা করার হেয়ার প্যাক

লম্বা চুল পছন্দ করে না এমন মানুষের সংখ্যা খুবই কম আছে। লম্বা চুল পছন্দ করে বেশিরভাগ নারী। তবে সবার চুল লম্বা হয় না। অনেকের চুল দ্রুত লম্বা হয় আবার অনেকের চুলের বৃদ্ধির গতি অনেক কম। আপনি ও কি আপনার চুল লম্বা করতে চান। কিন্তু বাজারের বিভিন্ন ধরনের দামি দামি কেমিক্যাল যুক্ত প্রোডাক্ট ব্যবহার করে ও চুল লম্বা হচ্ছে না। কারণ কেমিক্যাল যুক্ত প্রোডাক্ট আপনার চুলকে নষ্ট করে দেয়। আপনি চাইলে ঘরোয়া কিছু হেয়ার প্যাক পদ্ধতি ব্যবহার করে চুল লম্বা করতে পারবেন। তাহলে জেনে নিন চুল লম্বা করার হেয়ার প্যাক গুলো-

অলিভ অয়েল ও অ্যালোভেরার হেয়ার প্যাক
চুল লম্বা করতে এলোভেরা অনেক কার্যকরী উপাদান। এলোভেরা চুলের বিভিন্ন সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে। যেমন চুল পড়া, চুলের আগা ফাটা, চুলের গোড়া শক্ত মজবুত করা ইত্যাদি। অ্যালোভেরা হেয়ার প্যাক তৈরি করার জন্য অলিভ অয়েল হালকা গরম করে নিন। এরপর এতে এলোভেরা জেল বা  শাঁস মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটি মাথার ত্বক থেকে চুলের আগা পর্যন্ত ভালোভাবে লাগিয়ে রাখুন। ১০ থেকে ১৫ মিনিট অপেক্ষা করে শ্যাম্পু দিয়ে ভালো করে ধুয়ে ফেলুন। ভালো ফলাফলের জন্য সপ্তাহে ২থেকে 
৩ দিন ব্যবহার করতে পারেন।
পেঁয়াজের রস ও নারিকেল তেলের হেয়ার প্যাক
পেঁয়াজের রস নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে। নারিকেল তেল হালকা কুসুম গরম করে এতে পেঁয়াজের রস মিশিয়ে মাথার ত্বকে লাগিয়ে হালকা ম্যাসাজ করুন। ১০ থেকে ১৫ মিনিট রেখে শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেলুন। এতে আপনার চুল লম্বা হওয়ার পাশাপাশি নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে।

টক দই ও ডিমের হেয়ার প্যাক
টক দই এ ল্যাকটিক অ্যাসিড থাকে। চুলে আদ্রতা ধরে রাখতে সাহায্য করে ল্যাকটিক অ্যাসিড। এছাড়াও চুলের রূক্ষতা ও চুল পড়া রোধ করে। আপনি চাইলে বাড়িতে টক দই বানিয়ে হেয়ার প্যাক হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। টক দইয়ের সঙ্গে ডিমের সাদা অংশ মিশিয়ে হেয়ার প্যাক তৈরি করে নিন। আপনি চাইলে টক দইয়ের সঙ্গে বাদামের তেল ব্যবহার করতে পারেন। মাথার ত্বকে এই হেয়ার প্যাক ভালোভাবে লাগিয়ে নিন। কিছুক্ষণ অপেক্ষা করে শুকিয়ে গেলে শ্যাম্পু দিয়ে পরিষ্কার করে ফেলুন। সপ্তাহে দুইবার এই হেয়ার প্যাক ব্যবহার করতে পারেন।

পাকা কলা ও মধুর হেয়ার প্যাক
চুল লম্বা করতে কলা একটি উপকারী উপাদান। কলাতে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম থাকে। পাকা কলা ব্যবহার করলে চুলের উজ্জ্বলতা ধরে রাখে এবং মাথার ত্বকের পুষ্টি যোগাতে সাহায্য করে। পাকা কলার হেয়ার প্যাক তৈরির জন্য প্রথমে একটি কলা খোসা ছাড়িয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। এতে পরিমান মত কিছুটা মধু মিশিয়ে নিন। এতে নারকেল তেল ব্যবহার করতে পারেন। কলা ও মধুর হেয়ার প্যাক মাথার ত্বক ও চুলে ভালো করে লাগিয়ে রাখুন। ১০ থেকে ১৫ মিনিট অপেক্ষা করে শুকিয়ে শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেলুন।

চুল দ্রুত লম্বা ও ঘন করার সহজ উপায়

চুল লম্বা ও ঘন হয় না বর্তমানে অনেকের এটাই অভিযোগ। কিন্তু আধুনিক কর্মব্যস্ত জীবনযাত্রায় এত দূষণ,স্ট্রেস এবং পুষ্টির অভাবে চুল লম্বা ও ঘন না হওয়া এটাই তো স্বাভাবিক। চুল লম্বা ও ঘন করার জন্য আমরা কত ধরনের কেমিক্যাল যুক্ত প্রোডাক্ট ব্যবহার করে থাকি। এতে আমাদের চুল নষ্ট হয়ে যায়। তবে চুল দ্রুত লম্বা ও ঘন করার সহজ উপায় রয়েছে। যেগুলো ব্যবহার করলে খুব অল্প সময়ে আপনার চুল স্বাস্থ্যবান এবং লম্বা হবে। তবে তার আগে চুল লম্বা ও ঘন না হওয়ার কারণগুলো আপনাকে জানতে হবে।
  • চুল লম্বা করতে কাঁচির ব্যবহার করা। কিন্তু ভাবছেন যে চুল লম্বা করতে কেন কাচির ব্যবহার করবেন। চুলের আগা ফাটা,ভঙ্গুর এবং ক্ষতিগ্রস্ত হলে চুল লম্বা হতে বাধা দেয়। এর ফলে চুলের স্বাভাবিক বৃদ্ধি ব্যাহত হয়। তাই চুল দ্রুত লম্বা করতে মাসে নিয়মিত ২থেকে ৩ বার চুলের আগা কেটে ফেলুন।
  • চুলে তেল দিতে অনেকে পছন্দ করে না। চুলের গ্রোথ এর প্রয়োজনীয় নিউট্রিয়েড প্রোভাইড করে তেল। নিয়মিত চুলে তেল মালিশ করলে চুল দ্রুত লম্বা করতে সাহায্য করে এবং চুলের গোড়া মজবুত করতে সহায়তা করে। হালকা কুসুম গরম তেল মাথার ত্বকে মেসেজ করুন। এতে মাথার ত্বকের রক্ত চলাচল বৃদ্ধি করে। সপ্তাহে ২ থেকে ৩ দিন নারকেল তেলের ক্যাস্টর অয়েল মিশিয়ে ব্যবহার করুন এতে আপনার চুল কোমল ও ঝলমলে হবে।
  • সিলিকন সালফেট মুক্ত কম ক্ষার যুক্ত শ্যাম্পু চুলের জন্য খুবই উপকারী। অতিরিক্ত কেমিক্যালযুক্ত শ্যাম্পু ব্যবহার করলে চুলের রক্ষতা ও আদ্রতা হারিয়ে ফেলে। শ্যাম্পু করার পর অবশ্যই চুলে কন্ডিশার ব্যবহার করুন। ৪ থেকে ৫ মিনিটের বেশি চুলে কন্ডিশনার রাখবেন না। সব সময় চেষ্টা করবেন চুলের ধরন অনুযায়ী শ্যাম্পু এবং কন্ডিশনার ব্যবহার করার।
  • সপ্তাহে তিন থেকে চার দিন প্রাকৃতিক উপাদান মাথার ত্বকে ব্যবহার করুন। যেমন অ্যালোভেরা, হেনা, মেহেদী, আমলকি, আপেল সিডার ভিনেগার এবং নারকেলের দুধ সহ ইত্যাদি। এগুলো চুলের পুষ্টি যোগানোর পাশাপাশি চুল পড়া রোধ করবে এবং দ্রুত লম্বা করতে সহায়তা করবে।

ক্যাস্টর অয়েল দিয়ে চুল লম্বা করার উপায়

লম্বা ও ঘন কালো চুল যে কোন নারীর সৌন্দর্য বাড়িয়ে দেয় কয়েক গুণ। কিন্তু বর্তমান সময়ে অতিরিক্ত দূষণ, চুলের যত্ন না নেওয়া। চুলের আগা ফাটা,চুলে বৃদ্ধি কমে যাওয়া এবং চুলের উজ্জ্বলতা হারিয়ে যাচ্ছে। তবে এই ধরনের সমস্যায় নারিকেল তেলের সঙ্গে ক্যাস্টর অয়েল মিশিয়ে ব্যবহার করতে পারেন। ক্যাস্টর অয়েল চুলের দ্রুত বৃদ্ধি মাথার ত্বক ভালো রাখতে এবং চুলের উজ্জ্বলতা বাড়াতে সহায়তা করে। ফ্যাটি অ্যাসিড সমৃদ্ধ ক্যাস্টর অয়েল চুলের পুষ্টি সরবরাহ করে এবং চুলের গোড়া মজবুত করতে সাহায্য করে। জেনে নিন ক্যাস্টর অয়েল দিয়ে চুল লম্বা করার উপায়।

নারিকেল তেল ও ক্যাস্টর অয়েল
নারিকেল তেলের সঙ্গে দুই থেকে তিন চামচ পরিমাণ ক্যাস্টর অয়েল ভালো করে মিশিয়ে নিন। ৫ থেকে ১০ মিনিট ধরে মাথার ত্বকে ভালো করে হালকা ম্যাসাজ করুন। দুই থেকে তিন ঘণ্টা পর্যন্ত রেখে শ্যাম্পু দিয়ে ভালো করে ধুয়ে ফেলুন। ক্যাস্টর অয়েলের থাকা ফ্যাটি অ্যাসিড চুলকে মজবুত এবং ঝলমলে করবে।

অ্যালোভেরা ও ক্যাস্টর অয়েল
অ্যালোভেরা জেল এর সঙ্গে দুই থেকে তিন চামচ পরিমাণ ক্যাস্টর অয়েল মিশে ভালো করে পেস্ট তৈরি করে নিন। আপনি চাইলে এতে মেথি গুড়ো ব্যবহার করতে পারেন। এই পেস্ট মাথার ত্বকে ভালোভাবে লাগিয়ে এক থেকে দুই ঘন্টা রেখে দিন। এরপর কম ক্ষার যুক্ত ভেষজ শ্যাম্পু দিয়ে চুল পরিষ্কার করে ফেলুন।
ক্যাস্টর অয়েল ও অলিভ অয়েল
১ থেকে ২ টেবিল চামচ পরিমাণ ক্যাস্টর অয়েলের সঙ্গে সমপরিমাণ মতো অলিভ অয়েল মিশিয়ে হালকা কুসুম গরম করে নিন। এতে তিন থেকে চারটি জবা ফুলের পাপড়ি ব্যবহার করতে পারেন। এরপর ঠান্ডা করে মাথার ত্বকে ভালো করে ম্যাসাজ করুন। ভালো ফলাফল পেতে এক থেকে দেড় ঘন্টা রেখে শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে অন্তত দুই থেকে তিনবার ব্যবহার করতে পারেন।

ক্যাস্টর অয়েলের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া
ক্যাস্টর অয়েল চুলের জন্য খুবই উপকারী হলেও অতিরিক্ত পরিমাণে ব্যবহার করার কারণে মাথা ঘোরা, বমি বমি ভাব,স্কিন র‍্যাশ,অজ্ঞান হয়ে যাওয়া ও ডায়রিয়া হতে পারে। তাই ক্যাস্টর অয়েল ব্যবহার করলে নিজের শরীরের দিকে নজর রাখবেন। কোন প্রকার সমস্যা সৃষ্টি হলে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

পেঁয়াজের রস দিয়ে চুল ঘন করার উপায়

চুল পড়ার সমস্যায় নিয়ে কম বেশি সবাই ভুক্তভোগী হয়ে থাকেন। একেক জনের চুল পড়ার কারণ ও ভিন্ন ধরনের হয়ে থাকে। তবে যদি আপনার অতিরিক্ত চুল পড়ে ও খুশকি সমস্যা কিংবা মাথার ত্বকের চুলকানি সমস্যা দেখা দেয় তাহলে পেঁয়াজের রস ব্যবহার করুন। চুলের যত্ন পেঁয়াজের রস খুবই উপকারী। নতুন চুল গজাতে পেঁয়াজের রস অনেক কার্যকর। এছাড়া পেঁয়াজের রস মাথার ত্বকের রক্ত চলাচল বৃদ্ধি করতে সহায়তা করে তাহলে জেনে নিন পেঁয়াজের রস দিয়ে চুল ঘন করার উপায়।
  • নারকেল তেলের সঙ্গে পেঁয়াজের রস মিশিয়ে ব্যবহার করলে চুল ঘন হয়। নারকেল তেলের সঙ্গে পেঁয়াজের রস মিশালে এর কার্যকারিতা আরো বেড়ে যায়। তাই নারিকেল তেলের সঙ্গে সমপরিমাণ পেঁয়াজের রস মিশিয়ে মাথার ত্বকে লাগিয়ে হালকা ম্যাসাজ করুন। এতে চুল ঘন করার পাশাপাশি চুলের বৃদ্ধি ক্ষেত্রে ও দুর্দান্ত কার্যকরী। 
  • অ্যালোভেরা ও পেঁয়াজের রস চুল ঘন করতে সহায়তা করে। অ্যালোভেরা জেলের সঙ্গে ২ থেকে ৩ চামচ পেঁয়াজের রস মিশিয়ে চুলে ব্যবহার করুন। ১ থেকে দেড় ঘন্টা এ মিশ্রণটি চুলে লাগিয়ে অপেক্ষা করুন। এরপর মৃদু ক্ষার যুক্ত ভেষজ শ্যাম্পু দিয়ে পরিষ্কার করে ধুয়ে ফেলুন।
  • চুল ঘন করার পাশাপাশি মাথার স্ক্যাল পরিষ্কার রাখতে পেঁয়াজের রস ও লেবুর রস ব্যবহার করুন। লেবুর রস ও পেঁয়াজের রস সমপরিমাণ মিশিয়ে একটি মিশ্রণ তৈরি করে নিন। এই মিশ্রণটি মাথার স্ক্যাল্পে লাগিয়ে মাসাজ করুন। ১৫ থেকে ২০ মিনিট রেখে শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেলুন। এতে আপনার চুল ঘন এবং সিল্ক হবে।

চুল লম্বা ও ঘন করার তেলের নাম

চুলের যত্নে বিভিন্ন ধরনের তেল ব্যবহার করে থাকে অনেকে। কিন্তু চুল লম্বা ও ঘন করার তেল সম্পর্কে অনেকে জানেই না। চুল ঘন করার তেলের নাম বা কোন তেল ব্যবহার করলে চুল দ্রুত লম্বা হবে এই বিষয়ে প্রশ্নের শেষ নেই। লম্বা ও ঘন করার জন্য তেলের ব্যবহার খুবই জরুরী। তাহলে জেনে নিন কোন তেলগুলো ব্যবহার করলে চুল লম্বা ও ঘন হবে।
  • ক্যাস্টর অয়েল
  • কালোজিরা তেল
  • অলিভ অয়েল
  • আমলা তেল
  • নিম তেল
  • কাঠ বাদাম তেল
  • লেভেন্ডার অয়েল
  • পেঁয়াজ তেল
  • নারকেল তেল
  • আর্গান তেল
  • রোজ মেরী তেল
  • ক্যাশ কিং অয়েল
আপনি আপনার চুলের দৈর্ঘ্য ও ঘনত্ব অনুযায়ী তেল ব্যবহার করবেন। মনে রাখবেন অতিরিক্ত পরিমাণে তেল মাখলেই যে চুল ভালো থাকে এমন নয়। বরং এতে আপনার চুলের ক্ষতি হতে পারে। উপরোক্ত তেলগুলো ব্যবহার করলে চুল লম্বা ও ঘন করার পাশাপাশি চুলের গোড়া শক্ত ও মজবুত করতে সহায়তা করবে। আশা করছি চুল লম্বা ও ঘন করার তেলের নাম গুলো আপনাদের পছন্দ হয়েছে এবং ব্যবহার করে আপনারা উপকৃত হবেন।

পরামর্শমূলক কিছু টিপস

  • প্রয়োজন ছাড়া হেয়ার ড্রয়ার ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন,চুলে হিট দেওয়ার আগে চলে হিট পণ্য ব্যবহার করুন
  • ভেজা চুল কখনোই দীর্ঘ সময় ধরে টাওয়াল দিয়ে পেচিয়ে রাখবেন না
  • অতিরিক্ত ক্ষার কেমিক্যালযুক্ত পণ্য বা শ্যাম্পু ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকুন
  • ভেজা চুল কখনো আচড়াবেন না।
চুলের যত্নে নিয়মিত চুলে তেল ব্যবহার এবং প্রাকৃতিক উপাদানের হেয়ার প্যাক ব্যবহার করুন। অতিরিক্ত ক্ষার কেমিক্যাল যুক্ত পণ্য বা শ্যাম্পু ব্যবহার করা থেকে দূরে থাকুন। আশা করছি আজকের এই আর্টিকেলটি পড়ে আপনি চুল দ্রুত লম্বা ও ঘন করার সহজ উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানতে পেরেছেন এবং উপকৃত হয়েছেন। ভিটামিন ও পুষ্টিকর খাবার গ্রহণ করুন। নিয়মিত চুলের যত্ন করুন এবং বেশি বেশি পানি পান করুন। সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url